সংবাদ

বাতায়ন ৬ষ্ঠ সংকলন

উচ্চতর ইসলামী শিক্ষা ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান মা'হাদুল বুহুসিল ইসলামিয়া'র মুখপত্র বাতায়ন এর ৬ষ্ঠ সংকলন প্রকাশিত হয়েছে।  

আলোকিতদের পদচারণায় আলোর দ্যুতি ছড়িয়ে অনুষ্ঠিত হল মা’হাদের ওয়াজ ও দুআ মাহফিল

উলামা-ত্বলাবা, জজ-সচিব, প্রফেসরসহ বিশিষ্ট শিক্ষিতজন ও আপামর জনসাধারণের ব্যাপক উপস্থিতিতে গত ২৬ এপ্রিল মঙ্গলবার সন্ধ্যায় অনুষ্ঠিত হল মা’হাদের ওয়াজ ও দুআ মাহফিল। বাদ আসর তিলাওয়াত ও

নিবন্ধ

কুরবানীর তাৎপর্য : ফাযায়েল ও মাসায়েল

কুরবানীর অর্থ কুরবান এটি আরবী ভাষার মূলক্রিয়া। অর্থ সান্নিধ্য হওয়া, ঘনিষ্ট হওয়া। শব্দটি আরবী ভাষায় বিশেষ্য হিসেবেও ব্যবহৃত হয়। তখন এর অর্থ হয়, এমন বিষয় যার

প্রশ্ন ও উত্তর

প্রশ্ন : হানাফী মাযহাবের অনুসারী কোনো ব্যক্তি অন্য কোনো মাযহাবের ইমামরে পেছনে নামায পড়লে তাকেও কি সূরা ফাতেহা পড়তে হব? যে মাযহাবে মুক্তাদীর জন্য ও সূরা ফাতেহা পড়া আবশ্যক।

উত্তর : না, হানাফী মাযহাবের অনুসারী কোনো ব্যক্তি অন্য কোনো মাযহাবের ইমামরে পিছনে নামায পড়লে তাকে সূরা ফাতেহা পড়তে হবে না। উল্লখ্যে, কোনো মাযহাবের ইমাম

প্রশ্ন : সহবাস করার জন্য ওষধ খয়েে মাসকি বন্ধ করা বা পছোনো জায়যে আছে কি না?

উত্তর : আমাদরে জানা মতে ওষধ সবেনরে মাধ্যমে ঋতুস্রাব বন্ধ করা কংিবা অনয়িমতি করা স্বাস্থ্যরে জন্য ক্ষতকির। সুতরাং স্বাভাবকি অবস্থায় স্বাস্থ্যরে ক্ষতি করে জবৈকি চাহদিা

প্রশ্ন : আসসালামু আলাইকুম, ভাই,আমার নাম মাহবুব বর্তমানে মেডিকেল ৩য় বর্ষের ছাত্র।আমি খুব মানসিকভাবে চিন্তায় পরেগেছি,তাই আপনাদের কাছে আমার এই প্রশ্ন করা, সূরা ইয়াসিন এর ৫২ নং আয়াতে মহান আল্লাহ তা’য়ালা বলেছেন, (51) শিংগায় ফুঁক দেয়া হবে, তখনই তারা কবর থেকে তাদের পালনকর্তার দিকে ছুটে চলবে। (52) তারা বলবে, হায় আমাদের দুর্ভোগ! কে আমাদেরকে নিদ্রাস্থল থেকে উত্থিত করল? রহমান আল্লাহ তো এরই ওয়াদা দিয়েছিলেন এবং রসূলগণ সত্য বলেছিলেন। (53) এটা তো হবে কেবল এক মহানাদ। সে মুহুর্তেই তাদের সবাইকে আমার সামনে উপস্থিত করা হবে। (54) আজকের দিনে কারও প্রতি জুলুম করা হবে না এবং তোমরা যা করবে কেবল তারই প্রতিদান পাবে। আমার প্রশ্ন হল আমরা জানি যে মানুষের মৃত্যুর পর পাপী লোকদের কবরে আজাব হবে কিন্তুু সূরা ইয়াছিন এর ৫২ নং আয়াতে মহান আল্লাহ রব্বুল আ’লামিন বলেছেন (51) শিংগায় ফুঁক দেয়া হবে, তখনই তারা কবর থেকে তাদের পালনকর্তার দিকে ছুটে চলবে। (52) তারা বলবে, হায় আমাদের দুর্ভোগ! কে আমাদেরকে নিদ্রাস্থল থেকে উত্থিত করল? রহমান আল্লাহ তো এরই ওয়াদা দিয়েছিলেন এবং রসূলগণ সত্য বলেছিলেন। এই হিসাবে বিপদ গ্রস্তরা বলবে “কে আমাদেরকে নিদ্রাস্থল থেকে উত্থিত করল?” প্রশ্ন হল বিপদ গ্রস্তরা যদি নিদ্রায়ই থাকে তাহলে তাদেরকে কবরে শাস্তি কিভাবে দেয়া হবে। আশাকরি আপনারা আমাকে উপরের প্রশ্নটির উত্তর দিবেন আর আমার মনের সমস্যাও দূর হবে।আমি জানি যে পবিত্র কোরআনের অনুবাদে অনেক সময় যথার্থ অর্থ দিতে অনুবাদকগন ব্যর্থ হন।আপনারা যারা কোরআন সম্পর্কে জ্ঞান অর্জন করেছেন তারা অত্র আয়াতের শাব্দিকঅর্থ বিশ্লেষন করে যদি আমাকে উত্তর দেন ইনশাআল্লাহ আাল্লাহ রব্বুল আলামিন আপনাদের উত্তম প্রতিদান দান করবেন।

প্রশ্ন : ওষধ খেয়ে মাসিক বন্ধ করে কাফফারার ধারাবহিক ষাট রোযা রাখা যাবে কি না?

প্রশ্ন : খাওয়ার শুরুতে লবন ও শেষে মিষ্টি খাওয়া কি সুন্নাত? দলীলসহ জানালে খুশি হবো।

Top